Wednesday, 9 March 2016

অপারেটিং সিস্টেম, পর্ব-১

আমরা আমাদের কম্পিউটার বা মোবাইল এ ভিবিন্ন ধরনের সফটওয়্যার ব্যবহার করি। সফটওয়্যার দিয়ে আমরা কোন সমস্যার সমাধান করে থাকি। আপারেটিং সিস্টেমও এক ধরনের সফটওয়্যার যাকে সিস্টেম সফটওয়্যার বলে। আসলে আমরা যে সব ডিজিটাল ডিভাইজ দেখি তা হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার এর সমন্বয়ে গঠিত ও পরিচালিত। মোবাইল বা কম্পিউটার মূলত হার্ডওয়্যার বা সফটওয়্যার ব্যাতীত কল্পনা করা যায় না। হার্ডওয়্যার কে পরিচালনা করার জন্য অপারেটিং সিস্টেম সফটওয়্যার ব্যাবহার করা হয়। তাই অপারেটিং সিস্টেম এর গুরুত্ব অনেক বেশী।
কম্পিউটার এ ব্যাবহারিত হয় এমন কিছু অপারেটিং সিস্টেম হলঃ
১। লিনাক্স (Linux)
২। ইউনিক্স (Unix)
৩। উইন্ডোস (Windows)
৪। ম্যাকিন্টোস (Mac)
মোবাইল এ ব্যাবহারিত হয় এমন কিছু অপারেটিং সিস্টেম হলঃ
১। এন্ড্রয়েড (Android)
২। ব্লাকবেরি (BlackBerry)
৩। আইওএস (IOS)
৪। উইন্ডোস (Windows)
ইউজার,আপ্লিকেশন সফটওয়্যার, হার্ডওয়্যার এদের সাথে অপারেটিং সিস্টেম এর কি রকম সম্পর্ক তা আমরা নিচের চিত্রের মাধ্যমে বুঝতে পারি।
os define
চিত্র থেকে আমরা দেখতে পাই যে, ইউজার বা ব্যাবহারকারী সরাসরি অপারেটিং সিস্টেম এর সাথে যুক্ত না। সুতরাং ইউজার চাইলেও অপারেটিং সিস্টেম এর প্রোগ্রাম পরিবর্তন বা পরিবর্ধন করতে পারবে না। ইউজার আপ্লিকেশন সফটওয়্যার সরাসরি ব্যাবহার করে। আপ্লিকেশন সফটওয়্যার হল সেই সফটওয়্যার যা আমরা নিয়মিত মোবাইল বা কম্পিউটার এ ব্যাবহার করি। আপ্লিকেশন সফটওয়্যার ব্যাবহার এর জন্য অপারেটিং সিস্টেম এর সাহায্য নেয়া হয়ে থাকে। হার্ডওয়্যার কে কিভাবে এবং কতটুকু ব্যাবহার করবে তা এক জন ইউজারকে অপারেটিং সিস্টেম এর সাহায্য নিয়ে করতে হয়। অপারেটিং সিস্টেম মূলত কম্পিউটার বা ডিভাইস এর ম্যানেজার হিসেবে কাজ করে।

Visit Youtube

No comments:

Post a comment