Saturday, 6 January 2018

কিভাবে আপনার কম্পিউটারকে সুরক্ষিত রাখবেন?

আমাদের অনেকেরই ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ কম্পিউটার রয়েছে। অনেকেই ভাবেন যে কিভাবে এই যন্ত্রের সুরক্ষা রাখা যায়?
কম্পিউটারকে প্রধান তিনটি অংশে ভাগ করা হয়। এই অংশ গুলো হল-
১। হার্ডওয়্যার
২। সফটওয়্যার
৩। নেটওয়ার্ক  
আপনি যদি এই তিনটি অংশের যত্ননেন তাহলেই আপনার কম্পিউটার সুরক্ষিত থাকবে।
এখন প্রশ্ন হল কিভাবে এই তিনটি অংশের যত্ন নিবেন?
প্রথমেই হার্ডওয়্যার,
কম্পিউটারের হার্ডওয়্যার বলতে আমরা বুঝি- মনিটর, মাদারবোর্ড, হার্ডডিস্ক, র‍্যাম, পাওয়ার সাপ্লাই, সিডি/ডিভিডি-রম, মাউস, কীবোর্ড ইদ্যাদি।
এসব যন্ত্রাংশগুলো খুব দামি হয়ে থাকে, তাই আমাদের উচিত এই সব যন্ত্রের সঠিক ব্যবহার করা। কোন ভাবে যাতে ধুলা-ময়লা বা তরল জাতীয় কিছু না পরে সে দিকে লক্ষ রাখতে হবে।
কম্পিউটারের প্রসেসের গরম হয়ে যাওয়া একটা বড় সমস্যা। তাই যত পারুন একে ঠান্ডা স্থানে রাখুন।
ল্যাপটপের চার্জ ১০০% হয়ে গেলে, চারজার খুলে রাখুন।




সফটওয়্যার,
কম্পিউটার এ আমরা বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার ব্যবহার করে থাকি বিভিন্ন কাজে।
যেমন- পিডিএফ(pdf) বই পড়ার জন্য- Adobe Acrobat, গান প্লে করার জন্য- VLC Media Player  ইত্যাদি । আমরা অনেক সময় না বুঝে অপ্রয়োজনীয় সফটওয়্যার ইন্সটল করি আমাদের পিসিতে। ফলে আমাদের পিসির মেমরি ক্যাপাসিটি কমে যায়। ফলে আমাদের পিসির স্পিড অনেক কমে যায়। তাই আমাদের উচিত অপ্রয়োজনীয় সফটওয়্যার Uninstall করে দেয়া।
আমরা কম্পিউটার-এ সাধারন Windows XP, 7, 8 কিংবা Windows 10  অপারেটিং সিস্টেম সেত-আপ দেই। কিছুদিন চালানোর পর পিসি হ্যাং বা স্লো হয়ে যায়। এর অন্যতম কারন হল- টেম্পরারি ফাইল/ ডাটা ডিলিট না করা। Start  >> Run এ গিয়ে Tree লিখে ওকে বাটনে ক্লিক করুন।

আমাদের পিসিতে ভিবিন্ন ধরনের ড্রাইভার সফটওয়্যার রয়েছে। যেমন- Realtek audio driver, Graphics  driver, Bluetooth driver, LAN driver  ইত্যাদি। এসকল ড্রাইভার সফটওয়্যার সমূহকে আপডেট রাখুন।
কম্পিউটার এ আমাদের মূল্যবান তথ্য থাকে তাই এসব কোন ভাবেই যেন ভাইরাস এ নষ্ট না করতে পারে সে দিকে লক্ষ্য রাখবেন। এ জন্য আপনার পিসিতে ভাল মানের আন্টিভাইরাস ইন্সটল করুন, এর পর নিয়মিত ইন্টারনেট এর মাধ্যমে আপডেট করুন। আমি পরবর্তী ব্লগে কম্পিউটার সিকিউরিটি নিয়ে লিখব, তখন এ নিয়ে আরো বিস্তারিত লিখব।

সব শেষ হল নেটওয়ার্ক এর যত্ন নেয়া। ইন্টারনেট, ওয়াইফাই, ব্লুটুথ এসব নেটওয়ার্কের অন্তর্ভুক্ত। যখন আপনি পিকচার, অডিও, ভিডিও বা যে কোন ধরনের তথ্য মোবাইল বা অন্য আরেক পিসি থেকে আপনার পিসিতে আনবেন তখন ভাইরাস আসার সম্ভাবনা থাকে। তাই এ দিকে লক্ষ্য রেখে অবস্যই ফাইল আদান-প্রদান করবেন। এ ক্ষেত্রে আপনি এন্টিভাইরাসের মাধ্যমে স্ক্যান করে তথ্য আদান-প্রদান করুন।

ধন্যবাদ আপনাকে আমাদের ব্লগের এক জন পাঠক হওয়ার জন্য ।  

No comments:

Post a comment